কোথায় কখন

গত বছর সেপ্টেম্বরে আমরা সপ্তাহখানেকের জন্য পিটটান দিয়েছিলাম মন্ট্রিয়ল থেকে। ডোমিনিকান রিপাবলিক বলে একটা পুঁচকে দেশে।

আরও ভাল করে বললে পুনটা কানা বলে এক সমুদ্রসৈকতে। মাথার ওপর মুচমুচে নীল আকাশ, স্ফটিকস্বচ্ছ বালি আর অবিরাম নৃত্যরত সোনালি রুপোলী ঢেউয়ের অপূর্ব আলপনার বিবরণ দেওয়ার ভ্রমণকাহিনী এটা নয় কিন্তু।

এটা ছিল অল ইনক্লুসিভ ট্রিপ। টিকিট- সাত দিনের থাকা- অফুরন্ত খাওয়া সব টাকা একেবারে দিয়ে দায়িত্ব শেষ।

কিন্তু অফুরন্ত খাওয়াতে তো আমি চিরকালই যাচ্ছেতাই রকম ফেল। দুদিন ব্রেকফাস্টে গেছি, তৃতীয় দিন যথারীতি ডুব। ময়ূখকে অনেক ভুজুং ভাজুং দিয়ে এক কাপ কালো কফি আনতে রাজি করিয়ে ঘুমের দেশে আরেকবার তলিয়ে যাবার কি যে আনন্দ।

বেশ খানিকক্ষণ পরে গম্ভীর মুখে আগমন ঘটলো ময়ূখের।

“কাল থেকে কিছুতেই একা যাব না আমি। ওই ভদ্রমহিলা মাথা খারাপ করে দিয়েছেন আমায়। সারাক্ষণ জিজ্ঞেস করে গেলেন কোথায় ও?  তোমার গার্লফ্রেন্ড? এর মধ্যে বিয়েও করে ফেলেছ? বাহ বাহ চমৎকার!  কিন্তু সে খাবে না কেন?”

“কে ভদ্রমহিলা? কোথায়? মানে কেন?” আমার আকুল প্রশ্নবাণের একটিরও উত্তর মেলে না।

অগত্যা পরের সকালে গুটিগুটি পায়ে ডাইনিং এর দিকে হানা দিই, ভীষণ কৌতূহল মনে  মনে , জানতেই হবে কে তিনি আমার বিহনে চোখে এমন অন্ধকার দেখছেন।

একটা পছন্দসই টেবল খুঁজে পেতে না পেতেই দৌড়ে আসতে দেখলাম একজনকে, প্রতিটি পদক্ষেপে চলকে উঠছে মন ভাল করে দেওয়া হাসি।

এখানকার সিনিয়র ওয়েট্রেস। প্রথমদিনই আলাপ হয়েছিল। কিন্তু ওনার ইংরিজিটা আমার  স্প্যানিশের থেকেও দুর্বল হওয়ার ফলে বাক্যালাপ খুব বেশি দূর অগ্রসর হতে পারেনি।

“কাল ব্রেকফাস্টে আসনি কেন, বোকা মেয়ে? এমনি এমনি কালো কফি সকালে কেউ খায় বুঝি? শরীর খারাপ করবে না? আগেরদিন তুমি বলেছিলে ডিমের সানি সাইড আপ ভালোবাসো। কালকেও কিচেনে অর্ডার করেছিলাম তোমার জন্য। আজকেও আছে। ভাল করে খাবে কিন্তু। দুটো নিয়ো প্লিজ। আজ আমার ডিউটি শেষ। সারারাত কাজ ছিল তো। কাল তোমাদের দুজনকে নিজের হাতে সার্ভ করব”।

যেমন ছুটতে ছুটতে এসেছিলেন তেমনি ছুটতে ছুটতে চোখের আড়ালে চলে গেলেন স্থাণু আমাদের পেছনে ফেলে রেখে।

চোখের কোণটা কি জ্বালা করে উঠলো হঠাৎ ? সমুদ্রের হৃদয় ছেঁড়া অস্থির লোনা হাওয়াটার জন্যই নিশ্চয়।

পুনটা কানায় দ্বিতীয়বার আর কখনো যাওয়া হবে কিনা জানি না। অন্তত আশু কোনও সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছি না।

এক বছরের ওপর হয়ে গেল কিন্তু বুকের ভেতরটা কানায় কানায় ভরে আছে আজও।

 

 

Advertisements

One Comment

Add yours →

  1. very touchy. khub bhalo hoiche lekhata

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: